ফেসবুক থেকে কি আসলেই টাকা আয় করা যায়, বা কেই করতে পারে ?
“টাকা আয় করার সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি কি?”
“ঘরে বসে কিভাবে টাকা আয় করা যায়?”
এমন কোনো মাধ্যম থাকতো, যেন খুব দ্রুতই হাতে টাকা চলে আসতো
এমন প্রশ্ন উঁকি দেয় আমাদের মনে। বেকার জীবেন সবারই থাকে হাহাকার। কিন্তু খুব সহজেএর সমাধান হলো ফেসবুক থেকে আয়!
দিনের অন্তত একবার হলেও আমরা ফেসবুকে ঢুকে টাইমলাইনে আঙ্গুল ভূলায়। অন্যের ছবিতে লাইক-কমেন্ট করি, নিজের টাইমলাইনে বিভিন্ন পোস্ট শেয়ার করি, বন্ধুদের সাথে ম্যাসেঞ্জারে আড্ডা দিই। এসবের পাশাপাশি ২.৩২ বিলিয়ন ইউজার সমৃদ্ধ ফেসবুকে কিন্তু চাইলেই গড়ে তোলা যায় ছোটখাটো একটা অনলাইন স্টার্টআপ। বিভিন্ন ফ্যানপেজ তৈরি করা, ভিডিও বানানো, ফেসবুক গেম ডেভেলপ করা, অনলাইন শপের মত হাজারো পদ্ধতির মাধ্যমেই ফেসবুক হয়ে উঠতে পারে আপনার আয়ের উৎস।
ফেসবুক পেজ থেকে আয় কিভাবে ?

ফেসবুকে চোখ বুলালেই হাজারো পেজের ভীরে আমাদের চোখ ধাঁধায়। মানসম্মত কন্টেন্টসহ একটি ফেসবুক পেজ কিন্তু সহজেই কমবেশি অনেকের নিউজ ফিডেই প্রাধান্য পাবে।

ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম করার নিয়ম এ প্রথম ধাপ হলো প্রথমে ফেসবুকে একটি পেজ খুলে নেওয়া। এক্ষেত্রে আপনার নিজের আগ্রহের পাশাপাশি অন্যদের আগ্রহকেও প্রাধান্য দেয়া উচিত। ফেসবুক পেজ হতে পারে যেকোনো ধরনের। যেমন- ফুড রিভিউ, ট্রাভেল পেজ, নিউজ পোর্টাল কিংবা ট্রেন্ডি কোনো ট্রল পেজ। ট্রল পেজের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে, যেন এটি কোনো নির্দিষ্ট জনগোষ্ঠীকে আঘাত না করে বা কোনো বিতর্ক সৃষ্টি না করে। তাহলে কিন্তু আপনার ফেসবুক থেকে আয় এর উদ্দেশ্যের হিতে বিপরীত হতে পারে!

একটি ফেসবুকের পেজ মূল অংশ হলো কন্টেন্ট বা বিষয়বস্তু। ফেসবুক ইউজারদের এই বিশাল সংখ্যার কাছে আপনার পেজের গ্রহণযোগ্যতা নির্ভর করে কন্টেন্টের উপর। মানসম্মত ও সুন্দরভাবে বর্ণিত যেকোনো কন্টেন্ট ভালো ইউজারদের মাঝে সাড়া জাগাতে অনেকটাই সহায়ক। কন্টেন্ট তৈরি থেকে শুরু করে পরবর্তীতে বেশ কিছু পদক্ষেপ অবলম্বন করতে হবে । যেমন-
• আপনার ফ্যান পেজের জন্য একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট তৈরি করুন। ফেসবুকে পেজের পাশাপাশি একটি ওয়েবসাইট থাকা কিন্তু বেশ কাজের। আপনার কন্টেন্টের বিশদ বর্ণনা থাকবে এসব ওয়েবসাইটে। ওয়েবসাইট তৈরির জন্য আপনি ব্লগস্পট, ওয়ার্ডপ্রেস কিংবা উইবলির সাহায্য নিতে পারেন। ফ্রি ডোমেইনের কিছু সীমাবদ্ধতা থেকে বেরিয়ে আসতে আপনি অল্প কিছু টাকা খরচ করে বানিয়ে নিতে পারেন আপনার নিজেরই একটি ওয়েবসাইট।

ইউটিউবের যে ৫ ফিচার এতদিন জানতেন না

• “অ্যাডসেন্স (AdSense)” নামক গুগলের একটি প্রোগ্রাম রয়েছে, যা ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করার জন্য সাড়া বিশ্বব্যাপী বহুল ব্যবহৃত। অ্যাডসেন্সের কাজ হলো ওয়েবসাইটে বিভিন্ন কোম্পানির বিজ্ঞাপনের সরবরাহ করা এবং বিনিময়ে ওয়েবসাইটের পরিচালনাকারীদের একটি নির্দিষ্ট অর্থ দেয়া। প্রায়সময়ই বিভিন্ন ওয়েবসাইটে হাজারো অ্যাড আমাদের নজরে আসে এবং এগুলোই আপনার ফেসবুক পেজের ওয়েবসাইটে ব্যবহার করতে পারবেন গুগল অ্যাডসেন্স যুক্ত করার মাধ্যমে। এর ফলে আপনি আপনার ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন সহজেই ।

আইফোন ১৪ দেখতে কেমন?

• ফেসবুকে পেজে নিয়মিত নিত্যনতুন কন্টেন্ট হালনাগাদ করা অনেক জরুরী। বেশি বেশি কন্টেন্ট আপলোড করলে আপনার পেজ প্রতিনিয়তই নতুন নতুন মানুষের চোখে পড়বে, লাইক-কমেন্ট-শেয়ারের পরিমাণও বাড়তে থাকবে দ্রুতই।
• ফেসবুক থেকে আয় এর ক্ষেত্রে লক্ষ্য রাখতে হবে, আপনার শেয়ার করা কন্টেন্ট যেন অন্য কোনো আর্টিকেলের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ না হয়। কেননা অনেক ফেসবুক পেজের নিজস্ব কপিরাইট থাকে। অনেক অনেক ক্ষেত্রে রিপোর্ট করার মাধ্যমেও আর্টিকেল চুরির বিষয়টা চোখের সামনে চলে আসে। কন্টেন্ট হুবুহু প্রমাণিত হলে ফেসবুক কতৃপক্ষ সেসব পোস্ট তাৎক্ষনাত সরিয়ে দেয়।
ফেসবুকে আপনার পেজ তৈরি করা শেষ, শেষ কন্টেন্ট বানানোর কাজও। এবার এগোতে হবে কন্টেন্ট বা পোস্টগুলো বিক্রি করার দিকে। শপসামথিং (shopsomething.com) নামক অনলাইন একটি ওয়েবসাইট আছে যেখানে আপনি আপনার ফেসবুক পোস্ট বিক্রি করতে পারেন। এখানে নিজের একাউন্ট খুলে আপনার ফ্যান পেজের প্রতিটি পোস্টের জন্য নির্দিষ্ট মূল্য ধার্য করে দিতে হবে।

আপনার প্রেমিকা অন্য কাউকে ভালোবাসে বুঝবেন যেভাবে

আপনাকে নির্দিষ্ট অর্থ দিয়ে এসব পোস্ট ক্রয় করা হবে এবং পরবর্তীতে বিভিন্ন অ্যাডভারটাইজের জন্য এসব পোস্ট, পোস্টের ছবি ব্যবহার করা হবে। মূল্য নির্ধারণের ক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে, শুরুতেই অতি চড়া মূল্যের পোস্টে কিন্তু কেউই আগ্রহ দেখাবে না। তাই মাত্রাতিরিক্ত দাম চাওয়া থেকে বিরত থাকাই শ্রেয়।

পেইজ মনিটাইজেশন।
ফেসবুক পেইজ মনিটাইজেশন করতে কিছু শর্ত মানতে হবে।
প্রথমত আপনার পেইজে 10 হাজার অর্জিনাল ফলোয়ার থাকতে হবে।
আপনার নিজের তৈরী ভিডিতে সর্বশেষ 60 হাজার মিনিট ভিউ হতে হবে। তাহলেই আপনি মনিটাইজেশনের জন্য আপিল করদে পারবেন।

আপিল করার পরে ফেসবুত যাচাই শেষে যদি সব ঠিক থাকে তাহলে আপনাকে মনিটাইজেশন দিয়ে দিবে।

এর পরে আপনার পেইজে ভিডিও আপলোড করে সেখান থেকে আয় করতে পারবেন।
এখন আসুন ফেসবুক আমোদের কেনো টাকা দিবে।
আপনার ভিডিওতে তৃতিয় পক্ষের বিজ্ঞাপন শো করবে, আর এই বিজ্ঞাপন ভিউয়ের উপরে আপনি টাকা পাবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here