বুলবুল হাসান পাবনা জেলা প্রতিনিধিঃ
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের জন্মশতবার্ষিকী মুজিব বর্ষ উপলক্ষে সমগ্র দেশে তৃতীয় পর্যায়ের দ্বিতীয় ধাপে বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই)
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৬ হাজার ২২৯টি ঘরের চাবি ও দলিল হস্তান্তর কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ভার্চুয়ালি করেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর উপজেলার অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীন, প্রতিবন্ধি বিধবা সহ ১২০ জন মানুষকে মিষ্টিমুখ করানোর মাধ্যমে তাদের ঘরের চাবি ও দলিল হস্তান্তর করেন উপজেলার (ইউএনও) মোহা. সবুর আলী।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সবুর আলী বলেন বাংলাদেশের একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বেড়া উপজেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারী সম্মিলিত ভাবে কাজ করে করে যাচ্ছে।

সহকারী কমিশনার (ভুমি) রিজু তামান্না বলেন উপজেলার প্রত্যেকটি মানুষ যেন নিজ ঘরে থাকতে পারে সেটি নিশ্চিত করণের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করছি প্রকৃত গৃহীন পরিবার যেনো ঘর পায় তালিকা প্রস্তুত করনের সময় সঠিক তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন। ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষের এই বাড়ি এখন তাই কেবল তাদের ঠিকানা নয়, আত্মমর্যাদা আর সম্মানেরও প্রতীক।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বেড়া উপজেলার মেয়র অ্যাডভোকেট আসিফ শামস রঞ্জন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেজবাহ মোল্লা, প্রকল্প পরিচালক (পিআইও) আরিফুর রহমান, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহা. সিদ্দিক হোসেন, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সাংবাদিক, শিক্ষক, আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় উপকারভোগী সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশা মানুষ।

আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের তৃতীয় পর্যায়ে সরকার ঘরগুলোকে অধিকতর টেকসই ও জলবায়ু সহিষ্ণু করে গড়ে তুলতে ঘরগুলোর নকশা পরিবর্তন করেন। এতে ঘরগুলোর নির্মাণ খরচ বেড়ে যায়। আর এজন্যই এখন গৃহহীন ও ভূমিহীন মানুষেরা দুই শতাংশ জমির ওপর আরও উন্নতমানের টিনশেডের আধাপাকা ঘর পাবে। এছাড়াও রয়েছে বিদ্যুৎ সুপেয় পানির ব্যবস্থা।

ঘরগুলোকে অধিকতর টেকসই মজবুত করে গড়ে তোলায় প্রতিটি ঘরের নির্মাণ ব্যায় ১ লাখ ৯১ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ২ লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ টাকায় উন্নীত হয়। সরকার ঘরগুলোকে অধিকতর টেকসই করে নির্মাণ করতে মজবুত কড়ি কাঠ, পাথরের সর্দল ও রিইনফোর্স কংক্রিট কলাম (আরসিসি) পিলারে ভালো মানের রড ব্যবহার করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here